কাউখালী ডিগ্রী কলেজ এর ইতিবৃত্ত

 

রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলাধীন কাউখালী উপজেলার কৃতি সন্তান, বিশিষ্ট বিদ্যোৎসাহী ও সমাজ সেবক রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ এর তৎকালীন চেয়ারম্যান জনাব চিং কিউ রোয়াজা হচ্ছেন কাউখালী ডিগ্রী কলেজের স্বপ্নদ্রষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর পৃষ্টপোষকতায় কাউখালী উপজেলার সকল শিক্ষানুরাগী ও আপামর জনসাধারণের ঐকান্তিক সহযোগীতায় ১৯৯৯ সালে গোড়াপত্তন কাউখালী ডিগ্রী কলেজের রাঙ্গামাটির প্রাক্তন এম.পি. জনাব চাই থোয়াই রোয়াজার সহধর্মিনী অনন্য বিদুষী ও গুণী মহিলা জনাব ¯েœহময়ী চাক্মা নি:স্বার্থভাবে দান করেন কলেজ প্রতিষ্ঠাতার জন্য এক একর জমি, যার উপর রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে নির্মিত পাকা দালানেই কলেজের শুরু হয় শুভ যাত্রা।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড চট্টগ্রাম কর্তৃক প্রদান করা হয় বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখার পাঠ দানের অনুমতি ১৯৯৯ - ২০০০ শিক্ষাবর্ষে। দুই শতাধিক শিক্ষার্থী নিয়ে কলেজের পাঠদানের শুভ সূচনা করে প্রায় দেড় বৎসরের মধ্যে ২০০১ সালে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক কলেজটি প্রথম অস্থায়ী স্বীকৃতি প্রাপ্ত হয় এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার করুনাদীপ্ত এম.পি.ও ভূক্ত ২০০১ সালের এপ্রিল মাসে, যা এদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এম.পি.ও. ভূক্তির ইতিহাসে একটি বিরল ঘটনা। সাথে সাথে ২০০২ সালে স্থাপিত হয় চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক “উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট পরীক্ষা কেন্দ্র” (কোড-২৫৬) যদিও তা বিশেষ ষড়যন্ত্রের শিকারে পরিনত হয়ে

২০০৩ থেকে ২০০৮ পর্যন্ত চলমান ছিলনা এবং ২০০৯ সাল থেকে পুন: চালু হয়ে অধ্যাবধি পরিচালিত হয়ে আসছে সুষ্ঠভাবে।
কাউখালী উপজেলা সদরের অদূরে একটি পাহাড়ের চুড়ার মনোরম আকর্ষনীয় প্রাকৃতিক পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত উপজেলার একমাত্র এম.পি.ও ভূক্ত পা পা করে অগ্রসর হচ্ছে সম্মুখ ও উন্নয়নের পানে। ২০১১ সালে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর কলেজটিকে বি.এ.(পাস) ও বি.এস.এস. (পাস) কোর্সে অধিভূক্তি প্রদান করে এবং ২০১৩ সালে স্থাপিত হয় ডিগ্রী পরীক্ষা কেন্দ্র।

বর্তমানে, উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা শাখা ও ডিগ্রী পর্যায়ে বি.এ.(পাস) ও বি.এস.এস. (পাস) কোর্স মিলে প্রায় সাড়ে সাত শতাধিক (৭৫০) শিক্ষার্থীর পাঠদান গ্রহণ কার্যক্রম এবং এইচ.এস.সি. ও ডিগ্রী পরীক্ষা কেন্দ্রের যোগাযোগ, পরিবহন ও শিক্ষার ক্ষেত্রে পশ্চাৎপদ কাউখালী অশিক্ষিত ও অসচ্ছল অভিভাবকদের ছেলেমেয়েদেরকে প্রকৃত দেশপ্রেমিক যুগপযুগী আধুনিক নাগরিকে পরিণত করার কাজে অগ্রসরমান অত্র প্রতিষ্ঠান। তাছাড়া সচেতন অভিভাবকদের সহায়তায়, দক্ষ গভর্ণিং বডির দিক নির্দেশনায় ও শিক্ষক বৃন্দের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় শিক্ষার্থীদের মধ্যে পাঠদান কার্যক্রমকে আধুনিকায়ন করা হচ্ছে শ্রেণীকক্ষে সৃজনশীল তথ্য প্রযুক্তি সমৃদ্ধ কম্পিউটার ল্যাব: ও ডিজিটাল কন্টেট ইত্যাদি ব্যবহারের মাধ্যমে।
অদূর ভবিষ্যতে কাউখালী ডিগ্রী কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে উন্নীত করণের পরিকল্পনা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কামনা করছি সংশ্লিষ্ট সকলের সর্বাত্মক সহযোগীতা এবং পরম করুনাময় সৃষ্টিকর্তার অশেষ রহমতের। বিধাতা এ কাজে সহায় হউন।